করোনা ভ্যাকসিন তৈরির দৌড়ে ৩ নম্বরে আছে তুরস্ক

করোনা প্রতিরোধে নিজস্ব উপায়ে ভ্যাকসিন তৈরি করার দৌড়ে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের পর তুরস্ক তৃতীয় স্থানে রয়েছে বলে দাবি করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান।তিনি বলেন, তুরস্কের বৈজ্ঞানিক ও প্রযুক্তিগত গবেষণা কাউন্সিলের (তোবিতাক) অর্থায়নে পরিচালিত কোভিড-১৯ তুর্কি প্ল্যাটফরম বর্তমানে আটটি ভিন্ন ভ্যাকসিন এবং ১০টি ভিন্ন ওষুধপ্রয়োগ প্রকল্প নিয়ে কাজ করছে।তিনি উল্লেখ করেন যে

ভ্যাকসিনের দুটি ধরন প্রাণিদের ওপর প্রয়োগ পরীক্ষা সফলভাবে সম্পন্ন করেছে এবং তাদের মধ্যে একটি সম্প্রতি মানুষের ওপর পরীক্ষার নৈতিক অনুমোদন পেয়েছে।রোববার তোবিতাক অ্যাক্সিলেন্স সেন্টারের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এরদোয়ান বলেন, তুরস্ক সরকারি ও বেসরকারি খাত এবং বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সহযোগিতায় কোভিড-১৯ রোধে ভ্যাকসিন এবং ওষুধ তৈরিতে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি সাধন করছে।উল্লেখ,

ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্যানুযায়ী, সোমবার সকাল পর্যন্ত বিশ্বে করোনাক্রান্ত হয়েছেন দুই কোটি ২৪ হাজার ২৬৩ জন। সুস্থ হয়ে উঠেছেন এক কোটি ২৮ লাখ ৯৮ হাজার ২৩৮ জন। মারা গেছেন ৭ লাখ ৩৩ হাজার ৯৯৫ জন। আক্রান্তদের মধ্যে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৬৩ লাখ ৯২ হাজার ৩০ জন।সুত্রঃ ইউএনবি

আরও পড়ুন= করোনাভাইরাসের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত সারাবিশ্ব। এমন পরিস্থিতে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের অর্থ সহায়তা দিচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক। তবে এই অর্থসহায়তা পাওয়ার জন্য রয়েছে কিছু শর্ত রয়েছে। এই সহায়তা পাওয়ার আবেদন করতে হবে ৫টি ধাপে কিছু প্রশ্নের উত্তর দেয়া ও ডকুমেন্টস প্রদানের মাধ্যমে। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য কিছু বিষয় হচ্ছে:

১. অন্তত ২ থেকে ৫০ জন কর্মী থাকতে হবে।২. ব্যবসায়ের বয়স হতে হবে কমপক্ষে এক বছর।৩. করোনাকালে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে এমন প্রমাণ থাকতে হবে।৪. আপনার ব্যবসায় সম্পর্কে ফেসবুক খোঁজ খবর রাখতে পারবে এমন যোগাযোগ ব্যবস্থা থাকতে হবে।৫. আবেদনের জন্য

ফেসবুকে বিজনেস পেজ একটি ভেরিফাইড ই-মেইল থাকতে হবে।৬. থাকতে হবে ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের নির্দিষ্ট কার্যালয়।৭. শুধুমাত্র অনলাইনে কার্যক্রম থাকলে আবেদন গ্রহণযোগ্য হবে না।৮. থাকতে হবে ব্যবসায়ের লাইসেন্স।৯. অফিসিয়াল রেজিস্ট্রেশানর১০. অংশিদারি ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে পার্টনারশিপ লাইসেন্স।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *