banglatraffic.com
Friday , 16 October 2020 | [bangla_date]
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আন্তর্জাতিক
  5. করোনা আপডেট
  6. খেলাধূলা
  7. জাতীয়
  8. পাচঁ মিশালি
  9. বাজার
  10. বিনোদন
  11. মধ্যপাচ্য
  12. মা ও শিশুর যত্ন
  13. রাজনীতি
  14. রাশিফল
  15. লাইফস্টাইল

করোনায় সুস্থতার সংখ্যা ৩ লাখ ছাড়ালো

প্রতিবেদক
News24
October 16, 2020 1:35 pm

সারাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় এক হাজার ৫০৯ জন করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে করোনা আক্রান্ত রোগীর সুস্থ হওয়ার সংখ্যা ৩ লাখ ছাড়িয়েছে। দেশে মোট সুস্থের সংখ্যা দাঁড়াল ৩ লাখ ৭৩৮ জনে।এ পর্যন্ত দেশে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৮৬ হাজার ৮৬ জন। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন এক হাজার ৫২৭ জন।

ভাইরাসটিতে সারাদেশে মৃত্যু হয়েছে ৫ হাজার ৬২৩ জনের। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ১৫ জন।করোনা শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় ১০৯টি পরীক্ষাগারে ১৩ হাজার ৭৮৪টি নমুনা সংগ্রহ ও ১৩ হাজার ৫৭৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। ফলে এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২১ লাখ ৪০ হাজার ১২৯টি।

শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত করোনাবিষয়ক এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।বিজ্ঞপ্তিতে জানা যায়, ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার তুলনায় রোগী শনাক্তের হার ১১ দশমিক ২৫ শতাংশ এবং এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষার তুলনায় রোগী শনাক্তের হার ১৮ দশমিক ০৪ শতাংশ।

রোগী শনাক্তের তুলনায় সুস্থতার হার ৭৭ দশমিক ৮৯ এবং মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪৬ শতাংশ।এ পর্যন্ত করোনায় মোট মৃতের মধ্যে পুরুষ চার হাজার ৩২৭ জন (৭৬ দশমিক ৯৫ শতাংশ) ও নারী এক হাজার ২৯৬ জন (২৩ দশমিক ০৫ শতাংশ)।

উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ দেশে প্রথমবারের মতো করোনা শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু হয়। এরপর থেকেই দেশে করোনার প্রকোপ বাড়তে থাকে। ধীরে ধীরে এক, দুই ও তিন লাখ পর্যন্ত ছাড়িয়ে যায় করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। করোনা রোগীদের চিকিৎসায় সরকারের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে নানা উদ্যোগ। আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে দেশের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে।

দেশে করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত মোট পাঁচ হাজার ৬২৩ জন মারা গেছেন। তাদের মধ্যে পুরুষ চার হাজার ৩২৭ জন (৭৬ দশমিক ৯৫ শতাংশ) ও নারী এক হাজার ২৯৬ জন (২৩ দশমিক ০৫ শতাংশ।বয়সের পরিসংখ্যান বিশ্লেষণে দেখা গেছে, শূন্য থেকে ২০ বছর বয়সীদের মধ্যে করোনায় মৃত্যু সবচেয়ে কম। সবচেয়ে বেশি সংখ্যকের মৃত্যু হয়েছে ষাটোর্ধ্ব বয়সীদের।

গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। আর ১৮ মার্চ প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু হয়।স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) পর্যন্ত সারাদেশে মৃত পাঁচ হাজার ৬২৩ জনের মধ্যে ‍শূন্য থেকে ১০ বছর বয়সী ২৭ জন (শূন্য দশমিক ৪৮ শতাংশ), ১১ থেকে ২০ বছর বয়সী ৪৫ জন (শূন্য দশমিক ৮০ শতাংশ),

২১ থেকে ৩০ বছর বয়সী ১২৬ জন (২ দশমিক ২৪ শতাংশ), ৩১ থেকে ৪০ বছর বয়সী ৩১৫ জন (৫ দশমিক ৬০ শতাংশ), ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সী ৭০৮ জন (১২ দশমিক ৫৯ শতাংশ), ৫১ থেকে ৬০ বছর বয়সী এক হাজার ৫০১ জন (২৬ দশমিক ৬৯ শতাংশ) এবং ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে দুই হাজার ৯০১ জন (৫১ দশমিক ৫৯ শতাংশ)।গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ১৫ জনের মধ্যে ত্রিশোর্ধ্ব একজন, পঞ্চাশোর্ধ্ব চারজন এবং ষাটোর্ধ্ব ১০ জন রয়েছেন।

সর্বশেষ - মধ্যপাচ্য