আফগানিস্তানে শিক্ষা কেন্দ্রে আত্মঘাতী হামলায় নিহত বেড়ে ২৪

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের একটি শিক্ষা কেন্দ্রে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৪ জন হয়েছে। নিহতদের মধ্যে শিক্ষার্থীরাও রয়েছেন।শনিবারের এই হামলায় এছাড়াও আরও কয়েক ডজন আহত হয়েছেন।

দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র তারিক আরিয়ান বলেন, বোমা হামলাকারীকে শনাক্ত করতে পেরেছে নিরাপত্তা প্রহরীরা।বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, শিয়া প্রধান দাস্ত ই বার্চি এলাকার কাওসার ই দানিশ শিক্ষা কেন্দ্রে সচরাচর কয়েকশত শিক্ষার্থী অবস্থান করে।

এক সংবাদ সম্মেলনে তারিক আরিয়ান বলেন, নিরাপত্তা রক্ষীরা একজন হামলাকারীকে শনাক্ত করার পর সে কাওসার ই দানিশের সামনের রাস্তায় বিস্ফোরণ ঘটায়।তিনি বলেন, একজন আত্মঘাতী বোমারু শিক্ষা কেন্দ্রটিতে প্রবেশ করতে চাইছিল।

স্থানীয় বাসিন্দা আলী রেজা জানিয়েছেন, হতাহতদের অধিকাংশই শিক্ষার্থী এবং তারা সবাই প্রতিষ্ঠানটির ভিতরে ঢোকার অপেক্ষায় ছিলেন।তিনি জানান, কেন্দ্রটি থেকে প্রায় ১০০ মিটার দূরে দাঁড়িয়ে ছিলাম, তখনই বড় ধরনের বিস্ফোরণের ধাক্কায় ছিটকে যাই আমি।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, নিহতদের অধিকাংশই ছাত্র এবং তাদের বয়স ১৫ থেক ২৬ বছরের মধ্যে।রয়টার্সের এক প্রত্যক্ষদর্শী সাংবাদিক বলেন, পরিবারের সদস্যরা নিকটবর্তী একটি হাসপাতালে জড়ো হয়ে মেঝেতে সারি দিয়ে রাখা নিহতদের মধ্যে নিখোঁজ প্রিয়জনদের খোঁজ করছিল, অন্যদিকে আহতদের স্ট্রেচারে করে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পর সিনেটের জুডিশিয়ারি কমিটির সামনে স্বাক্ষ্য দেবেন সামাজিকমাধ্যম ফেসবুক ও টুইটারের প্রধান নির্বাহী।

ডেমোক্র্যাটিক প্রার্থী জে বাইডেনের ছেলেকে নিয়ে লেখা নিবন্ধ বন্ধ করার সিদ্ধান্ত কেন নিয়েছিলেন তারা, সে ব্যাপারে তাদের কাছে জানতে চাইবে সিনেট জুডিশিয়ারি কমিটি। বৃহস্পতিবার দুই প্রধান নির্বাহীকে সমন পাঠানোর ব্যাপারে ভোট দিয়েছেন তারা।বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, ১৭ নভেম্বর ফেসবুক প্রধান মার্ক জাকারবার্গ ও টুইটার প্রধান জ্যাক ডরসিকে তলবের সিদ্ধান্ত শুক্রবার জানিয়েছে সিনেট জুডিশিয়ারি কমিটি।

কমিটি বলছে, রক্ষণশীল-বিরোধী পক্ষপাতের অভিযোগটির ব্যাপারে স্বাক্ষ্য দেবেন প্রধান নির্বাহীরা। নিউ ইয়র্কপোস্টের নিবন্ধকে ভুল তথ্য হিসেবে আখ্যায়িত করে তা ব্লক করার সিদ্ধান্ত নিয়ে রক্ষণশীলদের কড়া সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছিল এই দুই সামাজিকমাধ্যমকে।

২৮ অক্টোবরেও সিনেট কমার্স কমিটির সামনেও হাজির হওয়ার কথা রয়েছে জ্যাক ডরসি ও মার্ক জাকারবার্গের। ওই শুনানিতে অবশ্য গুগল প্রধান নির্বাহী সুন্দার পিচাইও উপস্থিত থাকবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *