সেলফি তুলতে গিয়ে ২৫০ ফুট নিচে পড়ে ভারতীয় ক্রিকেটারের মৃত্যু

বন্ধুবান্ধবদের নিয়ে হুটহাট ঘুরতে বের হওয়ার নেশা ছিল ভারতের সাবেক রঞ্জি ক্রিকেটার শিখর গাওলির। কিন্তু মঙ্গলবার তার এই শখই হলো জীবনের সবচেয়ে বড় ক্ষতির কারণ।পাহাড়ে ট্র্যাকিং করতে গিয়ে ২৫০ ফুট উঁচু থেকে পড়ে মৃত্যুবরণ করেছেন ৪৫ বছর বয়সী ক্রিকেটার শিখর গাওলি। মহারাষ্ট্র দলের হয়ে রঞ্জি ট্রফিতে দুটি ম্যাচ খেলেছেন শিখর। মৃত্যুবরণ করার আগে মহারাষ্ট্র রঞ্জি দলের ফিটনেস ট্রেইনারের দায়িত্ব পালন করতেন তিনি।

লগাতপুরি পুলিশ স্টেশনের ইন্সপেক্টর অশোক রত্নপারখি নিশ্চিত করেছেন গাওলির মৃত্যুর খবর। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে তিনি জানিয়েছেন, বন্ধুবান্ধবের সঙ্গে লগাতপুরিতে পাহাড়ে ট্র্যাকিং করতে গিয়েছিলেন গাওলি।ইন্সপেক্টর অশোক বলেন, ‘আমরা এটিকে দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যু হিসেবে ফাইল করেছি। শিখরের সঙ্গে থাকা মানুষেরা আমাদের জানিয়েছে, সেলফি তুলতে গিয়ে নিজের ভারসাম্য হারিয়ে ফেলে এবং নিচে পড়ে গিয়ে দুর্ঘটনাটি ঘটে। ময়নাতদন্তের পর আমরা মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করব।’

মহারাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সেক্রেটারি রিয়াজ বাগওয়ান শোক প্রকাশ করে বলেন, ‘শিখরের মৃত্যুর খবরে আমরা এমসিএ পরিবার মর্মাহত। সপ্তাহ দুয়েক আগে বাবাকে হারিয়ে শিখরের পরিবার কঠিন সময়ের মধ্যে ছিল। আমাদের দলে তার অভিজ্ঞতা খুবই কার্যকরী ছিল। করোনা মহামারির কারণে তার পরিবারের সঙ্গে দেখা করা কঠিন হবে। শিগগিরই আমি তার বাড়িতে যাবো।’

দলের অধিনায়ক অঙ্কিত বাবনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল ফিটনেস ট্রেইনার শিখরের। তার মৃত্যুতে রীতিমতো বাকহারা অঙ্কিত। তিনি বলেন, ‘মহারাষ্ট্রের হয়ে খেলা শুরুর পর থেকেই শিখর স্যারের সঙ্গে আমার পরিচয়। তিনি খেলোয়াড়দের পরিবারের সদস্যের মতোই ছিলেন। তার সঙ্গে অনুশীলন না করে কখনও ব্যাটিং করতে নামতাম না আমি।’

ভারতের জাতীয় ক্রিকেট দল ও মহারাষ্ট্র ব্যাটসম্যান কেদার যাদভ বলেন, ‘তিনি খুবই কর্মঠ এবং সবার প্রতি সাহায্যপূর্ণ মনোভাব রাখতেন। ট্রেইনার হিসেবে তার তুলনা হয় না। সবসময় হাসিমুখে আমাদের উন্নতিই চাইতেন। মহারাষ্ট্র খেলোয়াড়রা এবং ব্যক্তিগতভাবে আমিও তাকে অনেক মিস করব।’

About News24

Check Also

ভারতের সংগীতশিল্পীকে বিয়ে করে ঢাকায় ফিরলেন মিথিলার ভাই

গেল মাসে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন শায়ান চৌধুরী অর্ণব ও ভারতের সংগীতশিল্পী সুনিধি নায়েক। কলকাতায় …