যৌতুক না পেয়ে বিয়ের আসর ছেড়ে ফিরে গেল বর

যৌতুকের দাবি মেটাতে না পারায় বিয়ের আসর ছেড়ে ফিরে গেল বর। ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলার যন্ত্রাইল চন্দ্রখোলা গ্রামে সোমবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। ওইদিন সকাল থেকেই চলছিল আমন্ত্রিত অতিথিদের আপ্যায়ন। সন্ধ্যায় কনে সাজানো হয়। রাতে শোল্লা ইউনিয়নের দক্ষিণ সিংহড়া গ্রামের মৃত ননী গোপাল রায়ের ছেলে সজীব রায় বর সেজে আসেন। সঙ্গে তার দুই ভাই রাজীব রায়, প্রকাশ রায় ও আত্মীয়স্বজন। উভয় পক্ষের অতিথিরা খাওয়া-দাওয়ার পর্বও শেষ করেন। এরপর পুরোহিত শুরু করেন বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা। ঘড়ির কাঁটায় রাত প্রায় দুটো। বধূ

সেজে কন্যা জয়ন্তী বেপারি ও বর সজীব রায় যথারীতি বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন। এমন সময় টিভি, ফ্রিজ, স্বর্ণালংকার ও যৌতুক হিসেবে নগদ তিন লাখ টাকা দাবি করে বরপক্ষ।এ কথা শুনে যেন আকাশ ভেঙে পড়ে কনের বাবা জগদীশ বেপারির মাথায়। তিনি আকুতি জানান। কিন্তু

কোনো কাজ হয়নি। বরপক্ষের লোকজন কনের স্বজনদের অপমান, তাদের ওপর হামলা ও বাড়ির আসবাবপত্র, বিয়ের অনান্য সামগ্রী ভাংচুর করে বরকে নিয়ে চলে যান।

কনে জয়ন্তী বেপারি কান্নাজড়িত কণ্ঠে যুগান্তরকে বলেন, ৫ বছর আগে মোবাইল ফোনে পরিচয় হয় উপজেলার শোল্লা ইউনিয়নের দক্ষিণ সিংহড়া গ্রামের সজীব রায়ের সঙ্গে। সেই সূত্র ধরে গভীর প্রেমে জড়িয়ে পড়ে দু’জন। পরিবারকে না জানিয়ে গোপনে হিন্দুরীতিতে ২০১৭

সালের ২২ জুন তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়। পরে দুই পরিবারের সম্মতিতে সোমবার সামাজিকভাবে বিয়ের দিনক্ষণ ঠিক হয়। কিন্তু বরপক্ষ যৌতুকের দাবি তুলে আমার বাবা-মাকে অপমান করে এবং গায়ে হাত তোলে। বাড়ির আসবাবপত্র ভাংচুর করে চলে যায়। এ ব্যাপারে শোল্লা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান দেওয়ান তুহিনুর রহমান তুহিন বলেন যৌতুক নেয়া ও দেয়া অপরাধ। এই ঘটনাটি আমি জানতাম না, খুবই দুঃখজনক বিষয়। মানবিক দিক বিবেচনা করে বরপক্ষের উচিত দ্রুত এ সমস্যার সমাধান করা।

About News24

Check Also

ক্যাসিনো সম্রাট মানিলন্ডারিং মামলায় গ্রেফতার

ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাট ওরফে ক্যাসিনো সম্রাট এবং তার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *