বিল গেটস: করোনার চেয়েও বড় সংকট আসছে

নভেল করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) তুলনায় জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব আরো কঠিন ও ধ্বংসাত্মক হবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন মাইক্রোসফটের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস। এ জন্য তিনি বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সরকারকে বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখার আহ্বান জানিয়েছেনসম্প্রতি নিজের লেখা একটি ব্লগে জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়টি তুলে ধরেন বিশ্বের এ শীর্ষ ধনী।

ব্লগ পোস্টে তিনি বলেন, চলমান বৈশ্বিক করোনাভাইরাস মহামারিতে প্রতি এক লাখে ১৪ জন মানুষ প্রাণ হারাচ্ছে। তবে বর্তমানে যে হারে কার্বন ডাই অক্সাইড নির্গত এটি অব্যহত থাকলে এ শতকের শেষ নাগাদ বৈশ্বিক উষ্ণতা এতটাই বেড়ে যাবে যে, প্রতি এক লাখে ৭৩ জন মানুষ মৃত্যুর মুখোমুখি হতে পারে। তাই এখনই এ সমস্যা সমাধানে যথাপোযুক্ত পদক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন। তা না হলে এটি প্রাণঘাতী কোভিড-১৯ থেকেও বেশি ধ্বংসাত্মক ও ভয়ংকর হতে পারে।

তিনি আরো বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে মানবজাতি কী ধরনের ভয়ংকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে পারে, তা চলমান করোনাভাইরাস পরিস্থিতির দিকে লক্ষ্য করলেই বুঝা যায়। কোভিড-১৯ এর কারণে একদিকে যেমন প্রচুর মানুষের প্রাণহানি হচ্ছে, তেমনি গোটা বিশ্ব আর্থিক ক্ষতিরও সম্মুখিন হচ্ছে। কার্বন ডাই অক্সাইড নির্গমন দূর করে জলবায়ু পরিবর্তন রোধ করা না গেলে এমন সংকট মানুষের নিত্যসঙ্গী হয়ে উঠবে।

বিল গেটস আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন রোধ করা না গেলে আগামীতে প্রতি দশকে একবার করে করোনাভাইরাস মহামারির মতো ঘটনা ঘটতে পারে। তাই কোভিড-১৯ পরিস্থিতি থেকে শিক্ষা নিয়ে আমাদের জলবায়ু পরিবর্তন রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। জীবন ও প্রকৃতি রক্ষার্থে কাজ করতে হবে।

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব করোনাভাইরাস পরিস্থিতি থেকে খারাপ হবে উল্লেখ তিনি আরো বলেন, যেসব দেশ জলবায়ু পরিবর্তনের সমস্যা সৃষ্টি করছে, এর প্রভাব তাদের ওপরই বেশি পড়বে। তারাই সবচেয়ে বেশি ক্ষতির সম্মুখিন হবে। তাই এটি রোধে সমাধান বের করার দায়িত্ব প্রথমত তাদেরই।

About News24

Check Also

সাতক্ষীরায় ৪ খুন : যেমন আছে বেঁচে যাওয়া শিশুটি

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় গলা কেটে স্বামী-স্ত্রীসহ চাঞ্চল্যকর ফোর মার্ডারের সময় ভাগ্যক্রমে বেঁচে যাওয়া ৪ মাসের ফুটফুটে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *