জমে ক্ষীর আইপিএল : দুই ম্যাচে সমীকরণ ছয়টি, অপেক্ষায় চার দল

কোনো সংশয়-সন্দেহ ছাড়াই বলে দেয়া যায়, এবারের আসরের জমজমাট ও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ লড়াই আইপিএলের আগের কোনো আসরে দেখা যায়নি। যেখানে প্রথম পর্বের ৫৬ ম্যাচের মধ্যে ৫৪টি শেষ হওয়ার পরেও জানা যায়নি কোন চার দল খেলবে প্লে-অফে। সেরা চারের টিকিট নিশ্চিত হয়েছে শুধুমাত্র বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের।

এছাড়া বাদ পড়ে গেছে আইপিএলের প্রথম আসরের চ্যাম্পিয়ন রাজস্থান রয়্যালস, আটবারের ফাইনালিস্ট ও তিনবারের চ্যাম্পিয়ন চেন্নাই সুপার কিংস এবং এখনও চ্যাম্পিয়ন না হতে পারা কিংস এলেভেন পাঞ্জাব। এছাড়া বাকি চার দলের সবার সামনেই রয়েছে সেরা চারে যাওয়ার সুযোগ। এখন শেষ দুই ম্যাচে বাকি থাকা তিন টিকিটের জন্য রয়েছে ছয়টি সমীকরণ।

জটিল সব সমীকরণে যাওয়ার আগে দেখে নেয়া যাক পয়েন্ট টেবিল

১/ মুম্বাই ইন্ডিয়ানস – ১৩ ম্যাচে ১৮ পয়েন্ট (+১.২৯৬)
২/ রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু – ১৩ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট (-০.১৪৫)
৩/ দিল্লি ক্যাপিট্যালস – ১৩ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট (-০.১৫৯)
৪/ কলকাতা নাইট রাইডার্স – ১৪ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট (-০.২১৪)
৫/ সানরাইজার্স হায়দরাবাদ – ১৩ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট (+০.৫৫৫)
৬/ কিংস এলেভেন পাঞ্জাব – ১৪ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট (-০.১৬২)
৭/ চেন্নাই সুপার কিংস – ১৪ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট (-০.৪৫৫)
৮/ রাজস্থান রয়্যালস – ১৪ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট (-০.৫৬৯)

এখানে দেখা যাচ্ছে, ১৮ পয়েন্ট নিয়ে একমাত্র দল হিসেবে প্লে-অফে চলে গেছে মুম্বাই ইন্ডিয়ানস। এমনকি নিশ্চিত হয়ে গেছে, তারাই থাকবে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে। এছাড়া সমান ১৪ পয়েন্ট করে রয়েছে রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু, দিল্লি ক্যাপিট্যালস ও কলকাতা নাইট রাইডার্সের।

তাই বলে এমনটা ভাবার সুযোগ নেই যে তারা প্রত্যেকেই যাবে সেরা চারে। কেননা ১২ পয়েন্টের সঙ্গে দারুণ নেট রানরেট নিয়ে তাদের ঘাড়েই নিশ্বাস ফেলছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। তবে একটি বিষয় নিশ্চিত টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে থাকবে দিল্লি অথবা ব্যাঙ্গালুরুর যেকোনো এক দল।

কারণ শেষ দুই ম্যাচের প্রথমটিতে আজ (সোমবার) রাতে লড়বে দিল্লি ও ব্যাঙ্গালুরু। এই ম্যাচের জয়ী ১৬ পয়েন্ট নিয়ে উঠে যাবে দুই নম্বরে, মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের মুখোমুখি হবে প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচে। এছাড়া পরের ম্যাচটিতে মঙ্গলবার হায়দরাবাদ বাঁচা-মরার লড়াইয়ে খেলবে মুম্বাইয়ের বিপক্ষে। সেই ম্যাচ জিতলে হায়দরাবাদ পেয়ে যাবে প্লে-অফের টিকিট, হারলেই নিশ্চিত বিদায়।

তবে যতটা সহজে বলা হচ্ছে, এসব সমীকরণ, আসলে ততটা সহজ নয়। জটিল কিছু অংকের হিসেব রয়ে গেছে শেষ দুই ম্যাচের জন্য। সেই ছয় সমীকরণ দিয়েই সাজানো এই প্রতিবেদন।

সমীকরণ ১

প্রথম ম্যাচ – দিল্লি ১৬০ রান করে ২১ বা তার কম রানে জয় অথবা ১৭.৩ ওভারের মধ্যে ১৬১ রান তাড়া করে জয়
দ্বিতীয় ম্যাচ – মুম্বাইয়ের বিপক্ষে যেকোনো ব্যবধানে হায়দরাবাদের জয়

এমনটা হলে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থান নিশ্চিত হয়ে যাবে দিল্লির। একইসঙ্গে অল্প ব্যবধানে হারায় নেট রানরেটে কলকাতার চেয়ে এগিয়ে থাকবে ব্যাঙ্গালুরু। আর শেষ ম্যাচে হায়দরাবাদ জেতায় বাদ পড়ে যাবে কলকাতা। তখন সেরা চারে উঠবে মুম্বাই, দিল্লি, হায়দরাবাদ ও ব্যাঙ্গালুরু।

সমীকরণ ২

প্রথম ম্যাচ – দিল্লি ১৬০ রান করে অন্তত ২২ রানে জয় অথবা ১৭.২ ওভারের মধ্যে ১৬১ রান তাড়া করে জয়
দ্বিতীয় ম্যাচ – মুম্বাইয়ের বিপক্ষে যেকোনো ব্যবধানে হায়দরাবাদের জয়

এমনটা হলে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থান নিশ্চিত হয়ে যাবে দিল্লির। কিন্তু পরাজয়ের ব্যবধানের নেট রানরেটের কলকাতার চেয়ে পিছিয়ে যাবে ব্যাঙ্গালুরু। পরে শেষ ম্যাচে হায়দরাবাদ জেতায় বাদ পড়ে যাবেন কোহলি, ডি ভিলিয়ার্সরা। তখন সেরা চারে উঠবে মুম্বাই, দিল্লি, হায়দরাবাদ ও কলকাতা।

সমীকরণ ৩

প্রথম ম্যাচ – ব্যাঙ্গালুরু ১৬০ রান করে ১৮ বা তার কম রানে জয় অথবা ১৮ ওভারের মধ্যে ১৬১ রান তাড়া করে জয়
দ্বিতীয় ম্যাচ – মুম্বাইয়ের বিপক্ষে যেকোনো ব্যবধানে হায়দরাবাদের জয়

এমনটা হলে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থান নিশ্চিত হয়ে যাবে ব্যাঙ্গালুরুর। একইসঙ্গে পরাজয়ের ব্যবধান কম হওয়ায় নেট রানরেটের হিসেবে কলকাতার চেয়ে এগিয়ে থাকবে দিল্লি। পরে শেষ ম্যাচে হায়দরাবাদ জেতায় বাদ পড়ে যাবে কলকাতা। তখন সেরা চারে উঠবে মুম্বাই, ব্যাঙ্গালুরু, হায়দরাবাদ ও দিল্লি।

সমীকরণ ৪

প্রথম ম্যাচ – ব্যাঙ্গালুরু ১৬০ রান করে কমপক্ষে ১৯ বা তার বেশি রানে জয় অথবা ১৭.৫ ওভারের মধ্যে ১৬১ রান তাড়া করে জয়
দ্বিতীয় ম্যাচ – মুম্বাইয়ের বিপক্ষে যেকোনো ব্যবধানে হায়দরাবাদের জয়

এমনটা হলে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থান নিশ্চিত হয়ে যাবে ব্যাঙ্গালুরুর। কিন্তু পরাজয়ের ব্যবধানের নেট রানরেটের কলকাতার চেয়ে পিছিয়ে যাবে দিল্লি। পরে শেষ ম্যাচে হায়দরাবাদ জেতায় বাদ পড়ে যাবেন শ্রেয়াস আইয়ার, কাগিসো রাবাদারা। তখন সেরা চারে উঠবে মুম্বাই, ব্যাঙ্গালুরু, হায়দরাবাদ ও কলকাতা।

সমীকরণ ৫

প্রথম ম্যাচ – ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষে যেকোনো ব্যবধানে দিল্লির জয়
দ্বিতীয় ম্যাচ – হায়দরাবাদের বিপক্ষে যেকোনো ব্যবধানে মুম্বাইয়ের জয়

এমনটা হলে আর নেট রানরেটের কোনো হিসেব বাকি থাকবে না। বাদ পড়ে যাবে হায়দরাবাদ, প্লে-অফ নিশ্চিত হবে কলকাতার। নিজেদের শেষ ম্যাচ জেতায় ১৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে থাকবে দিল্লি। তৃতীয়, চতুর্থ স্থানে থাকবে কলকাতা ও ব্যাঙ্গালুরু।

সমীকরণ ৬

প্রথম ম্যাচ – দিল্লির বিপক্ষে যেকোনো ব্যবধানে ব্যাঙ্গালুরুর জয়
দ্বিতীয় ম্যাচ – হায়দরাবাদের বিপক্ষে যেকোনো ব্যবধানে মুম্বাইয়ের জয়

এমনটা হলে আর নেট রানরেটের কোনো হিসেব বাকি থাকবে না। বাদ পড়ে যাবে হায়দরাবাদ, প্লে-অফ নিশ্চিত হবে কলকাতার। নিজেদের শেষ ম্যাচ জেতায় ১৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে থাকবে ব্যাঙ্গালুরু। তৃতীয়, চতুর্থ স্থানে থাকবে দিল্লি ও কলকাতা।

About News24

Check Also

সাদা পোশাকে বাংলাদেশের ২০ বছর

১০ নভেম্বর ২০০০ সাল। শীতের আভা তখন স্পষ্ট। কুয়াশাচ্ছন্ন এক সকাল। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে এতো …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *